দেশজুড়ে

বানিয়াচং  জি এফ স্কুলের বার্ষিক শিক্ষা সফর সম্পন্ন হয়েছে

প্রিন্ট করুন

সাজ্জাদ বিন লাল / আব্দুল হামিদ, বানিয়াচং  থেকে।
জীবনের সাথে শিক্ষার সম্পর্ক যেমন নিবিড়, শিক্ষার সাথে সফরের সম্পর্কও তেমনি নিবিড়। তাই সফর শিক্ষার অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ। সফর মানুষকে সুন্দর এ ধরণীর রহস্যের মধ্যে অবগাহন করার সুযোগ করে দেয়। পুঁথিগত বিদ্যার বাইরে সামাজিক শিক্ষায় শিক্ষার্থীদের সুস্থ ধারার মানসিকতা বিকাশের লক্ষ্যে শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মচারী ও ম্যানেজিং কমিটির সমন্বয়ে বানিয়াচং  গ্রীন ফেয়ার জিএফ স্কুলের এর বার্ষিক শিক্ষা সফর সম্পন্ন করা হয়েছে। 

আজ  (২৪ ফেব্রুয়ারি) দিন ব্যাপী এই শিক্ষা সফরের অংশগ্রহণ করতে পেরে সকলে বেশ উচ্ছসিত। এতে অংশগ্রহণ গ্রহণ করেন বিদ্যালয়ের প্রায় অর্ধশতজন  শিক্ষক,শিক্ষিকা, শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও ম্যানেজিং কমিটি নেতৃবৃন্দ।

সফরের মধ্যে ছিলো প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অন্যতম নিদর্শন    শ্রীমঙ্গলের অনেক দর্শনীয় স্থান রয়েছে। তন্মধ্যে মাধবপুর লেক,লাউয়া ছড়া,মাগুর ছড়া,চিড়িয়াখানা মতো বেশ গুরুত্বপূর্ণ পর্যটন কেন্দ্র গুলো ঘুরে দেখা হয় তাদের। সে খান থেকে অবস্থান নেয়া হয় দুপুরের খাবারের জন্য হোটেল মহসিন কমিউনিটি সেন্টার। ফিরতি পথে সফর করা হয় রশিদ পুরের সেরা চা বাগান গুলোতে । 

শিক্ষা সফরটি সফল করতে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কয়েক সদস্যবিশিষ্ট একটি উপকমিটি গঠন করেন।  এতে আহবায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন জনাব আলী ডিগ্রি কলেজের সাবেক প্রভাষক ও জিএফ স্কুলের সহকারী প্রধান  শিক্ষক মোঃ জাকারিয়া খান নেতৃত্ব দেন এবং উপস্থিত ছিলেন
পরিচালনার  কমিটির  অর্থ  সম্পাদক কামাল মিয়া। 
শিক্ষা  সফরে উপস্থিত ছিলেন বানিয়াচং  প্রেসক্লাব  সহ- সভাপতি  দৈনিক আলোকিত বাংলাদেশ পত্রিকার বানিয়াচং প্রতিনিধি মোঃ নজরুল ইসলাম তালুকদার, হাফেজ ছিদ্দিকুর রহমান, অবসরপ্রাপ্ত বিজিবি সদস্য ও সেচ্চাসেবকলীগ বানিয়াচং শাখার সহ-সভাপতি জুয়েল রানা, শিক্ষক আবুল হাসান মুহিন,মাহমুদুল হাসান শাওন,সামির হোসাইন,পাপড়ি খানম,কানিজ ফাতেমা নওশিন,নাজমীন আক্তার,লিজা আক্তার,স্বপ্না আক্তার,রিমা আক্তার প্রমূখ।

আনন্দঘন এই সফরটিতে একটি  রাফেল ড্র অনুষ্ঠিত হয়। এটি উদ্বোধন করেন বিদ্যালয়ের সভাপতি হাবিবুর রহমান হাবিব । রাফেল ড্র তে অংশ গ্রহণ কারীদের মধ্যে প্রথম বিজয়ী হিসেবে পুরষ্কার লাভ করেন বিদ্যালয়ের উর্বী আক্তার,দ্বিতীয় পুরষ্কার লাভ করেন বিদ্যালয়ের নিশাত আক্তার এবং তৃতীয় পুরষ্কার লাভ করেন বিদ্যালয়ের তারিন আক্তার।

এ ব্যাপারে বিদ্যালয়ের  প্রধান শিক্ষক ও পরিচালনার কমিটির প্রধান সাবেক চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান হাবিব  জানান, দীর্ঘ ১বছর পর এমন একটি আয়োজনে শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও সংশ্লিষ্ট সকলে বেশ আনন্দিত। প্রতি বছর ব্যাপকভাবে এই শিক্ষা সফরের আয়োজন করলে তা সবার অসম্পূর্ণ ও আবদ্ধ জ্ঞান বিকাশ লাভের সহায়ক হবে। শিক্ষা সফর একজন শিক্ষার্থীর শিক্ষা জীবনকে আনন্দময় ও পরিপূর্ণ করে তুলবে। আগামীতে ব্যাপক সংখ্যক শিক্ষার্থীদের উপস্থিতিতে এই শিক্ষা সফর উদযাপন করা হবে।


Related Articles

Back to top button
Close