দেশজুড়ে

নবীগঞ্জের পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে হামলায় শিকার পিতাপুত্র ও গৃহবধূ সহ আহত ৭

প্রিন্ট করুন



স্টাফ রিপোর্টার: হবিগঞ্জের নবীগঞ্জের কুর্শি ইউনিয়নের কুর্শি গ্রামে একদল লাটিয়াল বাহিনী দাঙ্গাবাজদের কান্ড! জমিতে ধান্য রোপনের মজুরীর টাকা চাইতে গিয়ে দিনমজুর সহ ৭ জন গুরুতর আহত হয়েছেন৷ গুরুতর আহতদের প্রথমে উদ্ধার করে নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আহতদের মধ্যে  ওই গ্রামের মৃত বন্দর উল্লার পুত্র আলতাফ মিয়া -(৬০), মাফিজ উদ্দীনের স্ত্রী হাসনা বেগম -(৫০), আফিজ উদ্দীনের পুত্র আক্তার মিয়া -(৩০) এদেরকে আশংকাজনক অবস্থায় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন, অপর আহত আলতাফ মিয়ার পুত্র স্কুল ছাত্র আশরাফুল মিয়া (১৭), নাসির মিয়া (১৩),আফিজ উদ্দীনের পুত্র আমরান হোসেন -(১৮), ও মাফিজ উদ্দিনের পুত্র  বদরুল মিয়া (১৯),তাদেরকে  নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে৷ ঘটনাটি ঘটেছে গত ২৪ আগষ্ট মঙ্গলবার সন্ধ্যা অনুমান সাড়ে ৭টায়৷ মামলার এজাহারে উল্লেখ ও আহত সূত্রে জানাযায়, কুর্শি গ্রামের মৃত কৈছর উল্লার পুত্র মনর আলী ও তার ভাই কালা মিয়ার জমিতে ঘটনার সপ্তাহ খানেক পূর্বে  অর্থের বিনিময়ে ধান্য  রোপনের কাজ করেন দিনমজুর আলতাফ মিয়া ও আক্তার মিয়া৷ এই মজুরীর টাকা চাইতে গেলে তারা টাকা দিতে নানা টালবাহানা শুরু করেন,এনিয়ে মুরুব্বীয়ানদের নিকট বিচারপ্রার্থী হলে দাঙ্গাবাজরা ক্ষিপ্ত হয়ে কুর্শি বাজারের ব্যবসায়ী কালাম মিয়ার দোকানের সামনে দিয়ে যাওয়ার সময়  আলতাফ মিয়া ও আক্তার মিয়াকে হঠাৎ  দেশীয় অস্ত্র শস্ত্র সহকারে পরিকল্পিত ভাবে হামলা করে রক্তাক্ত জখমী করে,  তাদেরকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে অপর নারী-পুরুষ গুরুতর আহত হন৷ এঘটনায় গত ২৪ আগষ্ট
হবিগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কগ (৫) আদালতে আহত আলতাফ মিয়ার ভাই মাফিজ উদ্দিন বাদী হয়ে কুর্শি গ্রামের মৃত হুশিয়ার উল্লার পুত্র ইরান মিয়া ও তার পুত্র সেলু মিয়া, মৃত কৈছর উল্লার পুত্র মনর আলী, সুন্দর আলী, কালা মিয়া, ইরান মিয়ার পুত্র সোহাগ,শোয়েব ও মৃত হুশিয়ার উল্লার পুত্র মাজ উদ্দীন সহ ৮ জনের নাম উল্লেখ করে গং আরো ৩/৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন৷ মামলাটি বিজ্ঞ আদালত আমলে নিয়ে আদেশ প্রাপ্তির ৩ দিনের মধ্যে এফ,আই,আর গন্যে মামলা রুজু করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য নবীগঞ্জ থানার ওসিকে নির্দেশ প্রদান করেন৷ এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার ওসি ডালিম আহমেদ এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন এখনো এই আদেশ তিনির  কাছে এসে পৌঁছায়নি, আসামাত্রই প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করবেন বলে আশ্বস্ত করেন৷


Related Articles

Back to top button
Close