দেশজুড়ে

হবিগঞ্জে চা শ্রমিকদের মহাসড়ক দখল করে অবরোধ

প্রিন্ট করুন

হবিগঞ্জের সংবাদ, অনলাইন সংস্করণ। দৈনিক মজুরি বৃদ্ধির দাবিতে টানা আন্দোলন করছেন চা শ্রমিকরা। শনিবারও হবিগঞ্জের ২৪টি চা বাগানে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেন চা শ্রমিকরা।

শ্রমিকরা জানিয়েছেন, ২৪টি চা বাগানের শ্রমিকরা দৈনিক মজুরি ১২০ টাকা থেকে ৩০০ টাকা করার দাবিতে টানা ১১ দিন ধরে কাজ বন্ধ রেখে আন্দোলনে নামেন। এর অংশ হিসেবে অব্যাহতভাবে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন তারা। এদিকে দৈনিক মজুরি বৃদ্ধির দাবিতে শনিবার দুপুর ১২টা থেকে হবিগঞ্জের মধুপুর, রশিদপুর, বৃন্দাবন, দ্বারাগাঁও, কামাইছড়াসহ বিভিন্ন বাগানের শ্রমিকরা জড়ো হয়ে বাহুবল উপজেলার বাগানবাড়ী নামক স্থানে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরোধ করেন।

বেলা দেড়টা পর্যন্ত তারা ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরোধ করে রাখেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ প্রশাসনসহ বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন। এ সময় শ্রমিকরা আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার জন্য বিভিন্ন স্লোগান দেন।

চা শ্রমিক নেতারা বলেন, গত বুধবার ঢাকায় শ্রম অধিদফতরের মহাপরিচালকের কার্যালয়ে বৈঠকে মালিক পক্ষ শ্রমিকদের সঙ্গে তামাশা করেছেন। দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে চা শ্রমিকদের ১২০ টাকা মজুরিতে জীবন জীবিকা চালানো এখন কঠিন হয়ে পড়েছে। এজন্য চা শ্রমিকরা ৩০০ টাকা মজুরি আদায়ের দাবিতে রাজপথে নামতে বাধ্য হয়েছে। তারা বলেন, আমাদের পিঠ দেয়ালে আটকে গেছে। আমাদের দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাবো।

বালুচর চা বাগানের পঞ্চায়েত সাধারণ সম্পাদক রাজারাম যাদব বলেন, আমরা চা শ্রমিকরা কি কষ্টে জীবনযাপন করছি তা কেউ দেখছে না। আমরা একবেলা খেলে আরেক বেলা খেতে পারি না। দ্রব্যমূল্য যেভাবে বাড়ছে তাতে আমাদের সংসার কিছুতেই চলছে না। যদি কর্তৃপক্ষ আমাদের দাবি মেনে নেন তবে আমরা সাথে সাথে কর্মসূচি প্রত্যাহার করে কাজে ফিরে যাব। অন্যথায় দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন চলতে থাকবে।


Related Articles

Back to top button
Close