দেশজুড়ে

লাখাই হাওরে ২৮ জাতের ধানে চিঁটা

প্রিন্ট করুন

লাখাই প্রতিনিধি।
লাখাই উপজেলাটি হাওর বেষ্টিত একটি এলাকা। এখানকার অধিকাংশ মানুষের জীবিকা নির্ভর করে কৃষির উপর। উপজেলায় পুরো হাওরে এখন শুধু ধানী ফসল। আসছে বৈশাখ মাসে সেই সোনার ফসল ঘরে তোলার পালা। কিন্তু বাঁধ সেধেছে চিটা। বিআর ২৮ জাতের ধানে চিটা দেখা দেয়ায় চিন্তার ভাজ পড়েছে সাধারণ কৃষকদের কাপালে। ইতোমধ্যে অধিকাংশ ২৮ জাতের ধান ক্ষেত নষ্ট হয়ে গেছে।
এ ব্যাপারে ভাদিকারা গ্রামের ঝালু মিয়া বলেন, কিতা কইতাম এ বছর আমি ৬ কের ২৮ ধান করছি। এই ৬ কের ক্ষেত করতে আমার খরচা হইছে ৪২ হাজার ট্যাকা এই ট্যাকার ধানঐ অইত না। চিন্তায় আছি পোলাপাইন লইয়া কামু কি, চলমু কেমনে। একই গ্রামের আব্দুল হাই জানান, এ বছর ৪ কের জমি করছি ২৮ ধান, কিন্তু কি যে অইল ধানে দেখা দিয়েছে চুছা, করচের টাকাই অইত না।
এ ব্যাপারে লাখই উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ শাকিল খন্দকারের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, আমরা বারবার কৃষক কে পরামর্শ দিয়েছি সময় মত জমিতে চারা রোপণ করতে এবং জমিতে ৩/৪ ইঞ্চি পানি রাখতে। অপর দিকে এ বছর রাত ও দিনের তাপ মাত্রা বেশী হওয়ায় বি আর ২৮ ও বিআর ২৯ জাত ধানে চিটা দেখা দিয়েছে।


Related Articles

Back to top button
Close