দেশজুড়ে

শ্রীমঙ্গলে ফসলি জমির উর্বর মাটি কেটে তুলে নিয়ে বিক্রি করা হচ্ছে

প্রিন্ট করুন

রুবেল আহম্মদ, শ্রীমঙ্গল (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি ঃ
মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলায় ফসলি জমির উর্বর মাটি কেটে তুলে নিয়ে বিক্রি করা হচ্ছে বিভিন্ন জায়গায় । এতে করে অনেক কৃষকের স্বপ্নের ফসলি জমিগুলো নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। মাটি কাটার ফলে জমিগুলোতে আবাদ হয় না তেমন ফসলি জমির ক্ষতি করে উপর স্তরের মাটি কেটে বিক্রি করে দিচ্ছে কিছু মাটি ব্যবসায়ী।
এতে জমির উর্বরা শক্তি নষ্ট হচ্ছে, অপর দিকে পরিবেশের মধ্যে পড়ছে বিরূপ প্রতিক্রিয়া। প্রতিদিন ১০-১২টি ট্রাক্টর দিয়ে ফসলি জমির মাটি কেটে নেওয়ায় গ্রামের রাস্তা ধুলাতে সয়লাব হয়ে পড়ছে। মাটি কেটে নেওয়ার কারণে পরিবেশ দূষণের পাশাপাশি ধুলা-বালির কারণে স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়ছেন স্থানীয়রা।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শ্রীমঙ্গল উপজেলার মির্জাপুর,সিন্দুরখান, আশিদ্রোন ও সদর ইউনিয়নে বিভিন্ন এলাকায় সকাল থেকে রাত পযন্ত মাটির বহন কারী ট্রাক্টর চলে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক কৃষক অভিযোগ করেন, সারাদিন মাটিবাহী ট্রাক্টর চলাচলের কারণে জমিতে স্তুপাকারে পড়েছে ধুলা। ধান গাছের চারা নষ্ট হচ্ছে। এভাবে মাটি কাটার ফলে জমির উর্বরা শক্তিও নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। জমির মাটি কেটে নেওয়ায় কয়েকটি জমি নিচু হয়ে গেছে। এতে জমিতে দেওয়া সেচের পানি থাকছে না, ওইসব নিচু জমিতে গিয়ে জমা হচ্ছে। এতে অন্য কৃষকরাও বাধ্য হয়ে তাদের জমির মাটি বিক্রি করছেন।
স্থানীয় কৃষক বলেন, ফসলি জমির মাটি কাটা নিষেধ। সম্পূর্ণ আইন পরিপন্থী কাজ।
সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো. নেছার উদ্দিন সাংবাদিকদের বলেন, ফসলি জমির মাটি কাটা সম্পূর্ণ আইন পরিপন্থী কাজ।অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


এই বিভাগের সর্বশেষ

Back to top button
Close